Dattatraya Sawant

মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য শিক্ষক থেকে হয়ে গেলেন অটোচালক, বানিয়ে ফেললেন আস্ত একটি অ্যাম্বুলেন্স, দেখুন বিস্তারিত

গত বছরের মতো এ বছরও বহু মানুষ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন। শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের দাঁড়াও কবিতার মত মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে আমাদের সকলকে। (Sonu Shood)সনু সুদ থেকে শুরু করে অক্ষয় কুমার, সকলে এই সময় আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তবে কিছু কিছু সাধারন মানুষ আছেন যারা অসাধারণ কাজ করেছেন এই সময়। তাদের মধ্যে আজ নাম নেব স্কুল শিক্ষক (Dattatraya Sawant) দত্তাত্রেয় সাওয়ান্তের। মুম্বাইয়ের দয়া সাগর বিদ্যামন্দির নামক একটি প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক তিনি।

Mumbai School Teacher Dattatraya Sawant
Image Source : ANI

দেশের এই সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য অসাধারন একটি উপায় বের করেছেন তিনি। যেহেতু এখন লকডাউন তাই স্কুল বন্ধ গত বছর থেকে। তাই নিজেই অটো নিয়ে বেরিয়ে পড়েছেন রাস্তায়। বিনামূল্যে করোনা রোগীদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স পরিসেবা দিচ্ছে নিজের অটোতে। যেটুকু টাকা তিনি এই মুহূর্তে জামাতে পেরেছেন, তার সবটুকু দিয়ে সাধ্যমত চেষ্টা করছেন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর।

এমনকি অটোর জ্বালানির খরচ হিসেবে নিজের স্ত্রীর জমানো টাকা খরচ করে ফেলেছেন তিনি। (Dattatraya Sawant) এই যুদ্ধে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন তার স্ত্রী। যে সমস্ত মানুষ বিপদের সময় অ্যাম্বুলেন্স পাচ্ছেন না তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য অটোতে এম্বুলেন্স এর ব্যবস্থা করেছেন তিনি। শুধু তাই নয় সমস্ত রকম বিধিনিষেধ মেনে তিনি এই এম্বুলেন্স রাস্তায় নামিয়েছেন। আক্রান্ত ব্যক্তিদের সাহায্য করার জন্য গোটা গাড়িটিকে বারবার স্যানিটাইজ করছেন তিনি।

আরো পড়ুন: নাতিকে বাঁচানোর জন্য আত্মঘাতী হলেন দাদু দিদিমা

এটি বেসরকারি সংবাদ মাধ্যমে তারা এই কাহিনী সকলের সামনে তুলে ধরা হয়েছে। এই কাহিনী সকলের সামনে শেয়ার করেছেন বিখ্যাত ক্রিকেটার ভিভিএস লাক্সমান। এই ওঠো চালকের সমস্ত খরচ বহন করবেন মিনিস্ট্রি অফ কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স। এছাড়াও মুম্বাই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের তরফ থেকে হাত বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে এই শিক্ষক তথা অটোচালকের দিকে। এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে তার মত মানুষ সত্যি পাওয়া বিরল। মানুষের অসময়ে রীতিমতো ভগবানের মতো তিনি দাঁড়িয়েছেন মানুষের পাশে।

আরো পড়ুন: দেশের প্রথম মহিলা অটোচালক, অটো চালিয়ে সংসার চালান