Ratan Tata earns plaudits after Tata Steel promises to pay full salaries

কর্মীদের পরিবারের সমস্ত দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন রতন টাটা, বেজে উঠলো জয়ধ্বনি

গত বছর থেকে লক্ষ লক্ষ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে নেমে গেছে। বহু মানুষের চাকরি চলে গেছে। বহু মানুষ না খেতে পেয়ে কাটাচ্ছেন দিনের পর দিন। একদিকে অর্থনীতিতে ভেঙে পড়া একটি সমাজ অন্যদিকে মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই করতে করতে বিধ্বস্ত হয়ে পড়ছে ভারত বর্ষ। তাই এবারে অন্যতম বিজনেস টাইকুন রতন টাটা (Ratan Tata) এগিয়ে এলেন মানুষের সাহায্যের জন্য আরো একবার।

পিএম কেয়ার ফান্ডে মুক্ত হস্তে দান করেছেন অনেকেই। তবে গত বছর থেকে যিনি সবার আগে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে নজিরবিহীনভাবে তিনি হলেন রতন টাটা (Ratan Tata)। টাটা স্টিলের এই কর্ণধার গত বছর থেকেই মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন বিনা স্বার্থে।

অক্সিজেন সংকটে এগিয়ে এসেছেন রতন টাটা: বর্তমানে ভারতবর্ষের সবথেকে বেশি মানুষ অক্সিজেন সংকটে মারা যাচ্ছে। এরা পরিস্থিতিতে ইস্পাত কারখানা গুলি যখন অক্সিজেন উৎপাদনের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছে, তখন এগিয়ে এসেছে টাটা স্টিল। ইস্পাত কারখানা গুলির কাছ থেকে পাওয়া ৪৪৩৫ মেট্রিক টন অক্সিজেনের প্রায় ১ হাজার ১৫৪ মেট্রিক টন আসে রতন টাটার কারখানাগুলি থেকে।

কর্মীদের জন্য এগিয়ে এলেন রতন টাটা: মহামারীর মধ্যেও প্রথম সারিতে দাঁড়িয়ে লড়াই করে চলেছেন টাটা স্টিলের কর্মীরা। সামাজিক সুরক্ষা নামক একটি প্রকল্পের আওতায় কোন কর্মীর যদি কাজ করতে করতে করোনায় মৃত্যু হয় তাহলে তার পরিবারকে বেতন দেবে টাটা স্টিল।

শুধু তাই নয়, সংস্থার অধীনে থাকা কর্মীরা তাদের সমস্ত চিকিৎসার সুযোগ-সুবিধা পাবেন রতন টাটার কাছ থেকে। ৬০বছর অর্থাৎ অবসর সময় অব্দি যেকোনো মৃতের পরিবার কে বেতন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল টাটা।

মৃতের কর্মীর পরিবারের দায়িত্ব নেবে টাটা: যে সমস্ত করবি প্রথম সারিতে দাঁড়িয়ে কাজ করছেন তাদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করলেন রতন টাটা। কাজ করতে করতে যদি কোনো কর্মীর মৃত্যু হয় তাহলে, তাদের বেতন দেওয়া তো রয়েছেই, তার পাশাপাশি তাদের ছেলেমেয়েদের পড়াশোনার ভালো নিজের কাঁধে তুলে নেবে টাটা স্টিল।

এই মুহূর্তে টাটা কারখানায় কাজ করেন প্রায় ৩২ হাজার কর্মী। কমবেশি মানুষ উপকৃত হবে এই উদ্যোগের মাধ্যমে। যে পরিস্থিতিতে মানুষ কাজ হারাচ্ছেন, সেই পরিস্থিতিতে টাটা স্টিলের এইভাবে কর্মীদের পাশে দাঁড়ানো পেয়ে যারপরনাই খুশি কর্মীরা। আরো একবার সমাজ মাধ্যমে রতন টাটার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন আপামর জনগণ।

আরো পড়ুন: সম্মান জনক পদক কেড়ে ফাঁসিতে ঝোলানো হোক সুশীলকে