- Advertisment -
HomeNewsPoliticsপরাজিত আসনে ময়নাতদন্তের দাবি শুভেন্দুর, জেলা স্তরে নেতাদের কড়া পরামর্শ

পরাজিত আসনে ময়নাতদন্তের দাবি শুভেন্দুর, জেলা স্তরে নেতাদের কড়া পরামর্শ

নির্বাচনে পরাজয়ের পর প্রথম মেগা বৈঠক, আর তাতেই হেরে যাওয়া সিটে হারের ময়না তদন্ত করার নির্দেশ দিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। শীর্ষ নেতৃত্ব প্রথম থেকেই থেকে তাকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে আসছে। আর সেই গুরুত্ব অনুযায়ী কাজ করতে শুরু করেছেন শুভেন্দু। যেই যেই আসনে বিজেপি (BJP) পর্যুদস্ত হয়েছে এবং খুব খারাপভাবে হেরেছে সেই সমস্ত আসনে হারের কারণ পর্যালোচনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

আর এই পর্যালোচনা হবে একেবারে গ্রাউন্ড লেভেল থেকে। ছোট বড় মেজো সমস্ত স্তরের নেতাদের তিনি নির্দেশ দিয়ে দিয়েছেন যেন ভালোভাবে এই হারের পর্যালোচনা করা হয় এবং আসনগুলি ধরে ধরে যেন এই পরাজয়ের কারণ বিবেচনা করা হয়।

শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) টার্গেট নিয়েছেন, ভোটে নিজের কেন্দ্রে জিততেই হবে। তিনি জানিয়ে, ছোট হোক কিংবা বড় সমস্ত নেতাদের নিজের কেন্দ্রে জয় একেবারে সুনিশ্চিত রাখতে হবে। এছাড়াও ছোট নেতাদের ক্ষেত্রে বুথে জয় সুনিশ্চিত করতে হবে বলে জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

বিধানসভা নির্বাচনে পরাজয়ের পরে বেশ খানিকটা মুষড়ে পড়েছে বিজেপি। কিন্তু, আগামী নির্বাচনের জন্য তাড়াতাড়ি কাম ব্যাক করতে হবে বিজেপিকে। তবেই বিজেপি বড় মাত্রায় সফলতা পেতে পারবে বলে মনে করছেন শুভেন্দু অধিকারী।

আগামী সময় বৃত্ত সম্পন্ন করার জন্য ক্ষমতা দখল করতে হবেই, এবং বিষয়টি বর্তমানে একেবারে ঠারে ঠারে বুঝতে পারছে বিজেপি। শুভেন্দুর এই সুচিন্তিত মতামত দলের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

রাজনৈতিকভাবে এই বৈঠকটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ ছিল। একদিকে যেমন এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডা, এছাড়াও ছিলেন দিলীপ ঘোষ, অমিতাভ চক্রবর্তী এবং অরবিন্দ মেননের মতো বেশ কিছু উচ্চপদস্থ নেতা। শুভেন্দু অধিকারী সেই সভায় বক্তব্য রাখেন,

আরো পড়ুন: শুভেন্দু অধিকারীকে পদ থেকে সরানোর প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস!

” একাধিক বিধানসভায় জয়ের উজ্জ্বল সম্ভাবনা সত্ত্বেও কেন বিজেপিকে ৭৭ আসনে আটকে থাকতে হলো তার কারণ খুঁজে বের করতে হবে। এই কারণে প্রত্যেকটি বিধানসভা কেন্দ্র ধরে ধরে ময়নাতদন্ত করতে হবে আমাদের। ”

যদিও বিজেপি নেতৃত্বের মধ্যে কয়েকজন বলছেন, “এখানে কোন নতুন সম্ভাবনা খোঁজার কিছু নেই। শুভেন্দু এটা এক প্রকার পরামর্শ দিয়েছেন।”

আরো পড়ুন: পাত্তা না দেওয়ার কারণে প্রেমিককে ব্লেড দিয়ে আঘাত করলো প্রেমিকা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

প্রায়শ্চিত্ত করলেন গঙ্গার ঘাটে গিয়ে! ‘মমতাই অশুভ শক্তি ধ্বংস করবে’ বিশ্বাস...

গঙ্গার ঘাটে গিয়ে মন্ত্র পড়ে, যজ্ঞ করে করলেন প্রায়শ্চিত্ত। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে মহালয়ার...

‘দেশ শাসন করছেন একজন মা, ধ্বংস করবে অশুভ শক্তিকে’, ইচ্ছা প্রকাশ...

ত্রিপুরার বেশকিছু বিজেপি নেতৃত্বরা নাকি তৃণমূলে নাম লেখানোর জন্য পা বাড়িয়ে রয়েছেন।

আগামী ২০ বছরের মধ্যে বাংলা দেশের ১ নম্বর শিল্পক্ষেত্র হবে’,সভামঞ্চে দাবী...

আগামী ১০০ বছরের মধ্যে রাজ্যে আর বিদ্যুতের অভাব থাকবে না। আগামী ৩ থেকে ৪ বছরের মধ্যে দেউচাপাঁচমি বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লাখনি হয়ে যাবে’।

রাজ্য সভাপতির পদ হারিয়েও বাংলার হয়ে কাজ করতে চান দিলীপ ঘোষ

বাবুল তৃণমূলে যোগদানের পাশাপাশি বিজেপির রাজ্য সভাপতি পদ থেকে দিলীপ ঘোষকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

শুভেন্দু অধিকারীকে পদ থেকে সরানোর প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস!

মমতা (Mamata Banerjee) তৃণমূলের (TMC) প্রতি কড়া আক্রমণ শানিয়েছেন বিজেপির (BJP) বর্তমান বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু (shuvendu adhikari)।

যারা বেসুরো তারা তাড়াতাড়ি বিদায় নিন, আমরা অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই জারি...

মন জয়ের কাজ আমরা চালিয়ে যাব মানুষের পাশে থেকে। "দল ঠিক ব্যবস্থা নেবে তাঁদের বিরুদ্ধে" যারা দলের ভালো চায় না : Locket Chatterjee

‘মারব এখানে, লা* পড়বে শ্মশানে’, এই ডায়লগের জন্যই কলকাতা হাইকোর্টে ছুটলেন...

যুব তৃণমূলের দাবী, সমাবেশে ‘মারব এখানে, লাশ পড়বে শ্মশানে’- Mithun Chakraborty-র বলা ডায়লগের পরই বাংলায় জ্বলে উঠেছে হিংসার আগুন।

মহুয়ার দেওয়া তথ্য ভুল, টুইট রাজ্যপালের, পাল্টা জবাব মহুয়া মৈত্রের

মহুয়া মৈত্র যিনি টুইটারে একটি টুইট করেন স্বজনপোষণ নিয়ে, প্রত্যেক বারের মত এবারও রাজ্যপাল মহুয়া মৈত্রের ওই টুটইকে নিশানা করে পাল্টা উত্তর দিলেন।

মানুষের ঘরে ঘরে দুধ পৌঁছে দেওয়ার কথা বলেই ফের ট্রোলড্ হলেন...

দুধ, গরু, গোমূত্র প্রভৃতি নিয়ে মন্তব্য দিলীপ ঘোষের নতুন নয়। বহুদিন ধরেই এমন কাজ করে আসছেন। এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বহুবার ট্রলড হতেও দেখা গিয়েছে দিলীপ ঘোষকে

প্রধানমন্ত্রীর ইয়াস বৈঠক বয়কট করার ইঙ্গিত ছিল মাননীয়ার, টুইটে দাবি রাজ্যপালের

নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) আলোচনা বৈঠক বয়কট করার পরিকল্পনা আগে থেকেই ছিল মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee)।